বর্তমান স্থান: মূল পাতা > 孟加拉语科教 > প্রধান লেখা

ব্রিটেন ও সিঙ্গাপুরের শিক্ষাসম্পর্কিত কিছু তথ্য

2017-01-30 15:27:51

ব্রিটেনের শিক্ষাব্যবস্থার সংস্কারে সরকারি ও বেসরকারি স্কুলের পার্থক্যের ওপর একটু মনোযোগ দেবো আমরা।

গত বছরের ডিসেম্বর মাসে অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন সংস্থা (ওইসিডি) ব্রিটেনের লন্ডনে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী মূল্যায়ন কর্মসূচি (পিআইএসএ)-র ফলাফল প্রকাশ করে। বিশ্বের ৭০টিরও বেশি দেশ ও অঞ্চলের ১৫ বছর বয়স্ক শিক্ষার্থীদের গণিত, বিজ্ঞান ও প্রবন্ধ পড়া-এ তিনটি পরীক্ষায় ব্রিটেনের অবস্থান স্পষ্টভাবে সিঙ্গাপুর ও চীনসহ এশীয় দেশের তুলনায় অনেক দুর্বল। গণিতের অবস্থান ২৭তম অবস্থানে দাঁড়িয়েছে, যা ২০০০ সালের পর অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন পরীক্ষার সবচেয়ে নিম্ন পর্যায়ে অবস্থিত। এ ফলাফল ব্রিটিশ শিক্ষা মহলে ব্যাপক আলোচনা সৃষ্টি করে।

আসলে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ব্রিটিশ সরকার অব্যাহতভাবে শিক্ষাব্যবস্থার সংস্কার চালু করেছে। বিশেষ করে থেরেসা মে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথগ্রহণের পর শিক্ষাব্যবস্থার সংস্কারকে গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্যমাত্রা হিসেবে চালু করেন। তিনি বলেন,

‘একটি পরিষেবা প্রদানকারী রাষ্ট্রে একজন নাগরিক কোথায় জন্মগ্রহণ করেন এবং তার মা-বাবা কত বেতন পান তা গুরুত্বপূর্ণ নয়, লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নের পথে প্রচেষ্টা চালালে নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব'।

তবে বেসরকারি স্কুলের সুদীর্ঘকালীন ঐতিহাসিক ব্রিটেনে এমন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়ন করা কি অনেক কঠিন ব্যাপার?

এ সম্পর্কে ব্রিটিশ শিক্ষাব্যবস্থায় বেসরকারি স্কুলের ভূমিকা ও অবস্থান নিয়ে ব্রিটেনের ওয়েস্টমিনিস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হুগো দে বার্গ সিআরআইয়ের সাংবাদিকদের সাক্ষাত্কার দেন। ব্রিটেনে প্রথম ইংরেজি ও চীনা- এ দুই ভাষার মাধ্যমে শিক্ষাদান করা কেনসিংটন ওয়েড প্রাথমিক স্কুলের যৌথ প্রতিষ্ঠাতা তিনি। বেসরকারি স্কুল ব্রিটিশদের কাছে এলিট ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণের প্রতিষ্ঠান। এ সম্পর্কে তিনি মনে করেন,

1234...>
খবর :
সর্বশেষ খবর চীন বিশ্ব দক্ষিণ এশিয়া

চীনা ভাষা শিখুন সংস্কৃতি জীবন বাণিজ্য চীনের বিশ্বকোষ