বর্তমান স্থান: মূল পাতা > খবর > সর্বশেষ খবর > প্রধান লেখা

চীনের করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিভিন্ন সংখ্যা যা প্রকাশ করে : সিআরআই সম্পাদকীয়

2020-02-14 17:20:15

২০২০ সালে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ চীনের জন্য বিরাট একটি চ্যালেঞ্জ। এটি চীনের দেশ প্রশাসন সামর্থ্যের একটি কঠোর পরীক্ষা। সারা চীন ঐক্যবদ্ধভাবে পরিস্থিতি মোকাবিলা করছে। এক একটি সংখ্যা ভাইরাস প্রতিরোধের শক্তি ও সাফল্য তুলে ধরছে। সিআরআই সম্পাদকীয় এসব মন্তব্য করেছে।  

সম্পাদকীয়তে কয়েকটি দৃষ্টিকোণ থেকে ভাইরাস প্রতিরোধ কার্যক্রম বিশ্লেষণ করা হয়। এতে বলা হয়, কয়েক কোটি মানুষের শহর উহান অবরুদ্ধ করে বিশ্বের কাছে নিজের দায়িত্বশীল মনোভাব তুলে ধরেছে চীন।

উল্লেখ্য, ২৩ জানুয়ারি সকাল ১০টা থেকে উহান শহরের সঙ্গে যাতায়াতের সব পথ বন্ধ করে দেওয়া হয়। শুক্রবার পর্যন্ত উহান শহর ২৩ দিনের অবরোধে পড়েছে।

দেশের রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্য কমিশনের পরিসংখ্যান থেকে জানা গেছে, বুধবার পর্যন্ত চীনে কোভিক-১৯ রোগীর সংখ্যা ছিল ৫২,৫২৬জন। এর মধ্যে ৪৩,৪৫৫জন হুপেই প্রদেশে আছে। আর এই ৪৩,৪৫৫ জনের মধ্যে ৩০,০৪৩জন উহান শহরে অবস্থিত।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানোম বলেছিলেন, গণপরিবহন বন্ধ করায় ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া ঠেকানো যাবে, বিশ্বজুড়ে তার সংক্রমণও কম হবে।

সম্পাদকীয়ত বলা হয়, চীনের ১৯টি প্রদেশ হুপেই-এর ১৬টি শহরকে সমর্থন দিচ্ছে

বুধবার পর্যন্ত, উহানে ৭টি অস্থায়ী হাসপাতাল চালু হয়েছে। ৩৬জন মানুষ এখান থেকে সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন। সবচেয়ে দ্রুতগতিতে তৈরি বিশেষ হাসপাতালে দশ ঘণ্টার মধ্যে রোগী ভর্তি শুরু হয়েছে। এর আগে উহানের হুও শেন শান হাসপাতালও দশ দিনের মধ্যে তৈরি হয়। লেই শেন শান হাসপাতাল তৈরিতে সময় লাগে ১২ দিন।

এ ছাড়া আরও অনেক অবিশ্বাস্য সংখ্যা ও সত্যতা আছে।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সারা চীন থেকে ২০ হাজারেরও বেশি চিকিত্সক নিয়ে গঠিত ১৮০টিরও বেশি চিকিত্সকদল হুপেই প্রদেশ এবং উহানে কাজ করছেন। ১৯টি প্রদেশ হুপেই-এর ১৬টি শহরের সঙ্গে দু'দিনের মধ্যে সরাসরি সহায়তার সম্পর্ক স্থাপন করেছে। বুধবার পর্যন্ত, চীনের মূল ভূভাগের প্রতিষ্ঠানগুলো হুপেইয়ে ৭ লাখ ২৬ হাজার ৭শটি প্রতিরোধমূলক পোশাক, ৩ লাখ ৫৮ হাজার ৪শ মাস্ক ও চশমা এবং ১৫৬৬টি অ্যাম্বুলেন্স পাঠিয়েছে।

খবর :
সর্বশেষ খবর চীন বিশ্ব দক্ষিণ এশিয়া

চীনা ভাষা শিখুন সংস্কৃতি জীবন বাণিজ্য চীনের বিশ্বকোষ