বর্তমান স্থান: মূল পাতা > সংস্কৃতি > প্রধান লেখা

এশিয়ার বাজারে নেটফ্লিক্স

2020-05-19 16:54:12

এশিয়ার বাজারে নেটফ্লিক্স

সদ্যসমাপ্ত শ্রম দিবসের ছুটিতে যারা বাসায় বসে বসে চলচ্চিত্র ও টিভি নাটক দেখতে পছন্দ করেন, তাদের কাছে এই ছুটি নিঃসন্দেহে মুভি বা নাটক উপভোগের ভালো সময় ছিলো।

বিশ্বের স্ট্রিমিং মিডিয়া জায়ান্ট হিসেবে নেটফ্লিক্স ১ মে'র কাছাকাছি সময় পর্যায়ক্রমে ‘ Extracurricular', ‘The Victims' Game' এবং ‘হলিউড'সহ প্রশংসনীয় ওরিজিনাল সহযোগিতায় নির্মিত টিভি নাটক মুক্তি দেয়।

নেটফ্লিক্সের ২০টিরও বেশি বছরব্যাপী বড় হওয়ার ইতিহাস হলো নামহীন ছোট এক চরিত্র ধীরে ধীরে সাহসের সঙ্গে বেঁচে থাকা এবং শক্তিশালী হওয়ার গল্প। ২০১৯ সালে নেটফ্লিক্সের চলচ্চিত্র শিল্প ২০২০ অস্কার পুরস্কারের ২৪টি পুরস্কার দিয়ে মনোনয়ন লাভ করে। নেটফ্লিক্স এই অত্যন্ত ভালো সাফল্য দিয়ে হলিউডের যে কোনো একটি চলচ্চিত্র, টিভি নাটক ও মিডিয়ার কোম্পানি ছাড়িয়ে যায়। শুধু তা নয়, নেটফ্লিক্স আনুষ্ঠানিকভাবে দ্য মোশন পিকচার অ্যাসোসিএশন অব আমেরিকা বা এমপিএএতে যোগ দেয় এবং এটি এমপিএএ‘র প্রথম নন-ফিল্ম কোম্পানি আর স্ট্রিমিং মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম।

দুই ময়দানে যুদ্ধ চলছে। একদিকে আছে বেশি বেশি অস্কার ট্রফি ঘরে নেওয়ার লড়াই। অন্যদিকে শুরু হয়ে গেছে স্ট্রিমিং ওয়ার। এই দুই তুমুল যুদ্ধের দুর্দান্ত যোদ্ধা নেটফ্লিক্স। প্রশ্ন হলো-দুই ময়দানেই কি জয়ের মালা গলায় নিতে পারবে নেটফ্লিক্স?

স্রেফ ‘হ্যাঁ' বা ‘না' দিয়ে এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়া প্রায় অসম্ভব। যুদ্ধ যে হচ্ছে সেয়ানে সেয়ানে! এক তুড়িতে নেটফ্লিক্সকে খারিজ করে দেওয়া যেমন সম্ভব নয়, তেমনি নেটফ্লিক্সের প্রতিপক্ষদের খাটো করে দেখাও ঠিক যুক্তিযুক্ত হবে না।

গতবারের অস্কার আসরেই সোনালি ট্রফির খরা ঘুচিয়েছে নেটফ্লিক্স। রোমা ছবির কল্যাণে গত আসরে একাধিক অস্কার ট্রফি নেটফ্লিক্স জিতেছে। তার জন্য অবশ্য অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে এই অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং প্রতিষ্ঠানকে। প্রথমে তো কেউ নেটফ্লিক্সকে অস্কারের পাতে তোলার যোগ্যই মনে করেনি। সেই অবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটিয়ে মূল মঞ্চে গিয়ে বিজয়ীর হাসি হাসা সহজ কাজ নয়। এবার সেই অগ্রগতি ধরে রেখে আরও সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার পালা। সেই এগোনোটা কতটুকু সম্ভব হবে, শঙ্কা তা নিয়েই।

1234...>
খবর :
সর্বশেষ খবর চীন বিশ্ব দক্ষিণ এশিয়া

চীনা ভাষা শিখুন সংস্কৃতি জীবন বাণিজ্য চীনের বিশ্বকোষ