বর্তমান স্থান: মূল পাতা > সংস্কৃতি > প্রধান লেখা

শিক্ষার্থীদের ভাগ্য পরিবর্তনে শিক্ষকের ভূমিকা নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র ‘হিচকি’

2018-12-27 10:52:48

শিক্ষার্থীদের ভাগ্য পরিবর্তনে শিক্ষকের ভূমিকা নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র ‘হিচকি’

ফরাসি চলচ্চিত্র ‘দ্যা কোরাস' (ফরাসি নাম ‘লেস কোরিস্টেস') নামে ফ্রান্সের এ চলচ্চিত্রে একজন শিক্ষকের শিক্ষার্থীদের ভাগ্য পরিবর্তনের কাহিনী তুলে ধরা হয়। বলা হয়ে থাকে-এ চলচ্চিত্রের কাহিনীকে ঘিরে ভারতে একটি চলচ্চিত্র তৈরি হয়। নাম হিচকি।

হিচকি চলচ্চিত্রের প্রধান চরিত্র নাইনা ‘তৌরেত্তে' রোগে আক্রান্ত হন (এক ধরনের বিরল বংশগত স্নায়বিক রোগ। এতে রোগী যত বেশি উত্তেজিত ও উদ্দীপ্ত হন, সমস্যা তত বেশি গুরুতর হতে থাকে।)

সাধারণভাবে বলা যায়, তৌরেত্তে রোগে আক্রান্ত লোকের জন্য নীরবে, নিভৃতে কাজ করে যাওয়া, এমন ধরনের চাকরি সম্ভবত বেশ সঙ্গতিপূর্ণ। তবে অন্যদের তুলনায় নাইনার বিশেষ একটি স্বপ্ন আছে। তিনি একজন শিক্ষক হিসেবে কাজ করার স্বপ্ন পোষণ করেন।

শিক্ষার্থীদেরকে জ্ঞান প্রদান করা হলো তার আশা-আকাঙ্ক্ষা। চাকরি পাওয়ার জন্য তিনি যথাক্রমে ১৯টি স্কুলে যান। তবে তারা সবাই তাকে প্রত্যাখ্যান করে।

কেউ এমন এক রোগীকে নিয়োগ করতে চায় না। একটি বা দুটি কথা শেষ করার পরপরই অব্যাহতভাবে হেঁচকি দিতে থাকেন।

তাই তিনি লম্বা সময় ধরে বাসায় থাকতে বাধ্য হন এবং বাবা সবসময়ই তাকে উপহাস করেন। অবশেষে নালার শিক্ষক হবার স্বপ্ন পূরণ হয়। যে স্কুল থেকে তিনি পাস করেন সেই স্কুল তাকে নিয়োগ করতে চায়। এর কারণ দুটি। একটি হলো স্কুলের প্রধান নাইনার উদ্দীপনায় উদ্বুদ্ধ হন এবং আরেকটি কারণ হলো আর কোনো লোককে নিয়োগ করতে পারে না। এভাবে নালা নাইন-এফ ক্লাসের শিক্ষক হিসেবে কাজ করা শুরু করেন। ক্লাসে মোট ১৪ জন শিক্ষার্থী। তাদের আচরণে শিক্ষকেরা অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেন। কেউ তাদের পড়াতে চান না।

খবর :
সর্বশেষ খবর চীন বিশ্ব দক্ষিণ এশিয়া

চীনা ভাষা শিখুন সংস্কৃতি জীবন বাণিজ্য চীনের বিশ্বকোষ