বর্তমান স্থান: মূল পাতা > সংস্কৃতি > প্রধান লেখা

সুগন্ধির বিস্ময়কর জাদুঘর ‘প্যারিস সুগন্ধি জাদুঘর’

2017-04-20 19:52:32

সুগন্ধির বিস্ময়কর জাদুঘর ‘প্যারিস সুগন্ধি জাদুঘর’

সুগন্ধি নিয়ে অনেক চলচ্চিত্র নির্মিত হয়েছে এবং এসব চলচ্চিত্র ভালোবাসা বা সৌন্দর্যের সঙ্গে সম্পর্কিত। লোকজন মনে করে, ফরাসি চলচ্চিত্র পরিচালকরা এমন ধরনের চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে খুব সুদক্ষ। অধিকাংশ মানুষের ধারণায় ফ্রান্স রোমান্টিকতা এবং আড়ম্বরপূর্ণ একটি দেশ। সেখানে ‘হাঁটার সঙ্গে সঙ্গে সুগন্ধি ছড়িয়ে পড়ে'। এটা হলো ফরাসি নারীদের সম্পর্কে মানুষের একেবারে প্রথম ধারণা।

ফ্রান্সে ইতিহাস, সংস্কৃতি ও জীবনযাপনের পদ্ধতির সঙ্গে সুগন্ধি সমন্বয় করা হয়, যা অবিশ্বাস্যভাবে জনগণের জীবনে প্রবেশ করেছে এবং দেশটির একটি গৌরব হয়ে উঠেছে।

সম্প্রতি জাদুঘরের শহর প্যারিসে প্রথম সুগন্ধি থিমসংক্রান্ত জাদুঘর, অর্থাত্ ‘প্যারিস পারফিউম মিউজিয়াম' জনগণের জন্য খুলে দেওয়া হয়। এতে সুগন্ধির ইতিহাস এবং সুগন্ধি তৈরির প্রক্রিয়াসহ বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরা হয়।

‘তোমার শরীরের সুগন্ধ ঘ্রাণ থেকেই বুঝতে পারি তুমি কি ধরনের মানুষ'। আসলে জাদুঘরটির দেয়ালে এরকম নানান কথা লেখা আছে। আরো লেখা আছে কিভাবে সুগন্ধি ব্যবহার করতে হয়।

ফরাসি জনগণের কাছে সুগন্ধি বেছে নেওয়া যেন কাপড় কেনার মতো, যা ব্যক্তিত্ব ও নিজেকে প্রকাশ করার একটি উপায়। যেমন, সুগভীর সুগন্ধি ব্যবহার করা মেয়ে সম্ভবত বিশেষ ব্যক্তিত্বসম্পন্ন একজন তরুণ মেয়ে। ফুলের হালকা সুগন্ধি ব্যবহার করা মেয়ে সম্ভবত শান্ত এবং নীরব চরিত্রের মেয়ে।

সব বয়সের ফরাসি নাগরিকই নানা ধরনের সুগন্ধি ব্যবহার করে থাকেন। ফরাসিরা বিভিন্ন পার্টিতে অংশ নেয়ার সময় সবাই ভিন্ন রকমের সুগন্ধি ব্যবহার করেন। তাদের দৃষ্টিতে এসব পার্টিতে সুগন্ধি ব্যবহার না করা মানে পোশাক ব্যবহার না করার মতো।

খবর :
সর্বশেষ খবর চীন বিশ্ব দক্ষিণ এশিয়া

চীনা ভাষা শিখুন সংস্কৃতি জীবন বাণিজ্য চীনের বিশ্বকোষ