বর্তমান স্থান: মূল পাতা > সংস্কৃতি > প্রধান লেখা

তিব্বতী চিত্রশিল্প

2015-03-17 15:38:04

চীনের অর্থনৈতিক উন্নয়নের ওপর সারা বিশ্ব দৃষ্টি রাখছে। চীনের গণ রাজনৈতিক পরামর্শ সম্মেলনের সদস্য, বিখ্যাত অর্থনীতিবিদ লিন ই ফু জানিয়েছেন, 'আমি মনে করি, আগামী ২০ বছরে অর্থনৈতিক বৃদ্ধি হার ৮ শতাংশ রাখতে পারার সুপ্ত শক্তি আছে চীনের। কিন্তু সুপ্ত শক্তি ও বাস্তব শক্তির মধ্যে ব্যবধান রয়েছে। যদি প্রযুক্তি অব্যাহতভাবে নবায়ন ও উদ্ভাবন করা যায় এবং শিল্পের হালনাগাদ করা যায় তাহলেই ৮ শতাংশের এই অর্থনৈতিক বৃদ্ধি হারের লক্ষ্য বাস্তবায়িত হতে পারে।'

চীনের দ্বাদশ জাতীয় গণকংগ্রেসের তৃতীয় অধিবেশনকালে চীনের বেসামরিক বিমান ব্যুরোর পরিচালক লি চিয়া সিয়াং চীনের বেসামরিক বিমানের নিরাপত্তা প্রসঙ্গে বলেছেন, 'চীনের বেসামরিক বিমান চলাচলের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় আমার আস্থা আছে। জাতিসংঘের বেসামরিক বিমান চলাচলের নিরাপত্তা বিষয়ক একটি পরিসংখ্যানে অনুসারে, চীনের বেসামরিক বিমান চলাচলের নিরাপত্তা পর্যায় বিশ্বের গড়পরতার চেয়ে ১০গুণ ভাল।'

চীনের প্রধানমন্ত্রী লি খে ছিয়াং চীনের দ্বাদশ জাতীয় গণকংগ্রেসের তৃতীয় অধিবেশনে সরকারি কার্যবিবরণীতে উল্লেখ করেছেন, জ্বালানি সম্পদ সাশ্রয় ও দূষিত পদার্থ নির্গমন কমানো এবং পরিবেশ অনাবিল করা খুবই কঠিন, কিন্তু খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ। তাছাড়া, জ্বালানি সম্পদ ও দেশের উন্নয়নের সঙ্গে এবং ভোক্তা সংস্কার ও জীবিকার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। সেজন্য চীনের উচিত ইতিবাচক জ্বালানি সম্পদের উন্নয়ন করা। যেমন বিদ্যুত ও পানির উন্নয়ন, পারমাণিক বিদ্যুত উন্নয়ন এবং কয়লা গ্যাস ও কোমল শিলা গ্যাস পদ্ধতির উন্নয়ন ও সদ্ব্যবহার ইত্যাদি। এ প্রসঙ্গে চীনের অন্তঃমঙ্গোলিয়ার স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের প্রেসিডেন্ট চীনের গণ রাজনৈতিক পরামর্শ সম্মেলনের সদস্য রেন ইয়া ভিং বলেছেন,

রেন ইয়া ভিং'র কথা :

'চীনের সারা দেশের উত্পাদন শক্তির বিন্যাস অনুসারে জ্বালানী ক্ষয়ের হার ও নিঃসরণের মানদন্ডের যুক্তিসংগত সুবিন্যাস করা উচিত। সারা দেশের জ্বালানি সম্পদ সরবরাহ ও চাহিদার মধ্যে অন্তঃমঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল বার্ষিক ৬০ কোটি টন কয়লা অন্য প্রদেশে সরবরাহ করে। ৬০ কোটি টন একটি বড় সংখ্যা হলেও পরিবহন প্রক্রিয়ায় কারণে পরিবেশ দূষণ ও ক্ষয়ক্ষতি হয়। এ অবস্থা পরিবর্তনের জন্য দেশের নতুন নীতি অনুসারে অন্তঃমঙ্গোলিয়া একটি দূষণবিহীন জ্বালানি সম্পদের ঘাঁটিতে পরিণত হয়েছে। আগের অন্য প্রদেশে সরাসরি কয়লা পরিবহন থেকে বাইরে সরাসরি পরিবর্তিত দূষণবিহীন বিদ্যুত শক্তি সরবরাহ করে। মানে প্রথমে অন্তঃমঙ্গোলিয়ায় কয়লা থেকে দূষণবিহীন বিদ্যুত শক্তিতে পরিবর্তন করে। অন্যান্য প্রদেশে অন্তঃমঙ্গোলিয়ার সরবরাহকৃত দূষণবিহীন বিদ্যুতের পরিমাণ চীনে প্রথম স্থানে। কিন্তু গুরুতর সমস্যা হচ্ছে, ২০২০ সাল পর্যন্ত, সংশ্লিষ্ট নিয়মগুলো অনুযায়ী, অন্তঃমঙ্গোলিয়ার বার্ষিক বিদ্যুত সরবরাহ পরিমাণ ঘন্টায় ৮৩০ বিলিয়ন কিলোওয়াট পৌঁছাবে। যাতে প্রতি বছর অন্তঃমঙ্গোলিয়ায় প্রায় ৪০ কোটি টনের কয়লা ব্যবস্থা করতে হবে। কিন্তু এত বেশি কয়লার ব্যবস্থা করা অন্তঃমঙ্গোলিয়ার জন্য অসম্ভব। সেজন্য আমার প্রস্তাব হচ্ছে যুক্তিসঙ্গতভাবে দূষণবিহীন জ্বালানি সম্পদের উত্পাদন ও ভোক্তার ব্যবস্থা বিভিন্ন প্রদেশে করা হোক।'

1234...>
খবর :
সর্বশেষ খবর চীন বিশ্ব দক্ষিণ এশিয়া

চীনা ভাষা শিখুন সংস্কৃতি জীবন বাণিজ্য চীনের বিশ্বকোষ